সাপের কাটা মাথা কেন কামড়ায়? - বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা।

সাপের কাটা মাথাও কামড়ায়! এবং এই কাটা মাথা একটা মানুষকে মেরে ফেলতেও  সক্ষম।
অনেক কেই বলতে শোনা যায়, মারা যাওয়ার পর সাপ ভুত হয়, দানবে রুপ নেয় ইত্যাদি ইত্যাদি।

ধরুন আপনি একটি সাপের মাথা ফেলে দিলেন, কিন্তু ঐ কাটা মাথার সাপ দ্বারাই আপনি হ্মতিগ্রস্থ হলেন।
হ্যা, বিষয়টা এমন যে, একে বলা হয় প্রতিবর্তি ক্রিয়া বা রিফ্লেক্স।

যেমন কেউ আপনাকে মারতে আসলে আপনি প্রথমে আগে তাকে প্রতিরোধ করবেন। এটা আপনাকে কেউ বলে দিতে হয়না। এটাই সহজাত প্রতিবর্তি ক্রিয়া।
তো যখন আপনি যেকোন সাপকে বিরক্ত করেন তখন আপনার বিরুদ্ধে সাপের শরীরে প্রতিশোধ ক্রিয়ার উদ্ভব হয়। সাপের ঘ্রান শক্তি খুব প্রখর, তাই সে আপনার শরীরের ঘ্রান চিনে রাখে। এবং সুযোগ বুঝে আক্রমন করে

কিন্তু ধরুন আপনি সাপের দেহ থেকে মাথা আলাদা করলেন তখন, কিভাবে সাপ কামড়ায় ?
- বেশ কিছু প্রানি যেমন তেলাপোকা, সাপ, কুমির, কচ্ছপ এরা খাবার ছাড়াই প্রায় সাপ্তাহখানেক বাঁচতে পারে। তেমনি এদের শরীর থেকে মাথা আলাদা করলেও মাথা সচল থাকে কিন্তু শরীর প্রয়োজনীয় দিক নির্দেশনার অভাবে বিকল হয়ে পড়ে।
তো সাপের মাথা আলাদা করলেও সাপের দেহ বিকল হয় কিন্তু ব্রেন সচল থাকে কয়েক ঘন্টা থেকে কয়েক দিন।

তাই এই কাটা মুন্ডুই আপনার শরীরের ঘ্রান আন্দাজ করে আপনার পিছু নেয়। এবং চান্স পেলেই আঘাত করে। এর মধ্যে যদি অন্য কাউকেও কামড়ায় তাহলে সে বিষ দেবেনা, কারন সে শুধুই আপনার প্রতিশোধ নেবে।

ধারনা করা হয় যে সাপের বিশ যত বেশি তার বাঁচার সময়ও তত বেশি।

এটাই হল আসল রহস্য। পোস্ট কেমন লাগলো জানাবেন।


Previous Post
Next Post