বই এ হোক ভালবাসা ।

বই পড়তে ভালবাসেন এমন মানুষ যেমন আছেন । তেমনি বই পড়তে ভাললাগেনা এমন মানুষের সংখ্যাও কম নয় । কিন্তু বই যেখানে মানুষের নিত্য সংগী পরম বন্ধু হবার কথা সেখানে বই ই কেন আমাদের ভাল লাগেনা । আসলে ব্যাপার টা আমাদের জীবনযাত্রার সাথে জুতসই হয়ে ঊঠতে পারেনি । 
কেন ? -এর কারন হিসেবে বলতে পারি আমাদের শিক্ষা ব্যাবস্থা যা আমাদের বই গলাধঃকরনে বাধ্য করে বই পড়ে উপলব্ধি করায় নয় । আর আমরাও হয়ে যাই বই বিমুখী । 


কিন্তু কিভাবে আপনি বই পড়ার ভাল একটি অভ্যাস গড়ে তুলবেন তা নিশ্চই জানতে ইচ্ছে করছে ? এজন্য রয়েছে বেশ কিছু ভাল বই যা আপনাকে বই পড়তে ও উপভোগ করতে সাহায্য করবে । আর সবচেয়ে বড় কথা রাতে ঘুমুতে জাবার আগে ফেসবুকে সময় নষ্ট না করে ডুবতে পারেন বইতে । বইয়ের একেক টা পৃষ্ঠা ফেসবুকের সি মোর ষ্টোরিজের চেয়ে অনেক আকর্ষনীয় । 


সমসাময়িক কিছু বইঃ প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ , শিল্পি ষ্টুডিও, রিটিন, মানবজনম, একজন কমলালেবু, হুমায়ুন আহমেদের ( হিমু সিরিজ ) , শেষ চিঠি , ইচ্ছা পুরন সহ ইত্যাদি । 

এছাড়া আরও পড়তে পারেনঃ লক্ষ আমার পক্ষ নেয়া , ইয়াম্মি সিরিজ , গড্ডলিকা (পরশুরামের), উলটা পালটা সিক্সটি নাইন , রবিন্দ্র রচনাবলি ইত্যাদি । ( আমার পছন্দের লিষ্ট )

 
তাছাড়াও পড়াঅভ্যাস গড়ে তুলতে যে ধরনের বই পড়তে পারেন

ভ্রমণের বই
ইবনে বতুতা কিংবা মার্কো পোলোর ভ্রমণ নিয়ে ইতিহাসভিত্তিক কোনো বই খুঁজে নিতে পারেন। যে বই আপনাকে একাকী কোথাও নিয়ে যাবে, তা-ই পড়ুন।

ভালোবাসার গল্প
রোমিও-জুলিয়েটের মতো প্রেমকাহিনি না হলেও যে বই পড়লে নিজেকে, নিজের মানুষটাকে ভালোবাসতে, বুঝতে পারবেন, তা পড়তে পারেন কিন্তু।

ছোটগল্পের বই
ছোটগল্পে কিন্তু অল্প বাক্যে অনেক সময় আটকে থাকে। এমন সময় আটকে দেওয়া গল্পের বই পড়ে সময় কাটাতে পারেন।
দ্বীপ-সমুদ্রের ওপর কোনো বই
জলদস্যুদের জাহাজে হারানোর সুযোগ দিতে পারে এমন কোনো বই থেকে নিজের জীবনের অন্য মানে খুঁজে নিন।

রম্য আত্মজীবনী
বেঁচে থাকাটা কি খুব বেশি একঘেয়ে যাচ্ছে আপনার? এমন কারও আত্মজীবনী খুঁজে বের করুন, যার গল্প আপনাকে সামান্য সময়ের জন্য হলেও অন্য কোথাও নিয়ে যাবে।

স্কুলে পড়ে শেষ করতে পারেননি এমন কোনো বই
স্কুলজীবনে হাজারো বই কিনেও না পড়ার রেকর্ড প্রায় সবারই থাকে। এমন কোনো একটি বই খুঁজে বের করে হারিয়ে যান।

বন্ধুত্ব নিয়ে বই
ব্যস্ততা কি বন্ধুত্বকে হালকা করে দেয়? উত্তরটা যাদের হ্যাঁ হবে, তারা বন্ধুত্বকে নতুন করে জানতে খুঁজে নিন এমন কোনো বই।

১০০ বছর আগের কোনো বই পড়ুন
আমাদের আগে কী ছিল?—এমন প্রশ্ন কি মনে উঁকি দেয় না? শার্লক হোমস, ফেলুদা কিংবা সাহিত্যের সব চরিত্র কিন্তু বয়সে আমাদের চেয়ে অনেক ‘সিনিয়র’! যে সালে জন্মেছেন, তার ঠিক ১০০ বছর আগে প্রকাশিত আলোচিত কোনো বই পড়ে সেই সময়টায় হারিয়ে যেতে পারেন কিন্তু!

আপনার বাবা-মা কিংবা সহধর্মীর প্রিয় কোনো বই
বাবা-মা কিংবা সহধর্মিণীর প্রিয় বইটির কোনো দিন খোঁজ নিয়েছেন? না পড়লে এখনই পড়ুন!

যে বইটির চলচ্চিত্র দেখেছেন
অনেক আলোচিত বই নিয়েই সিনেমা তৈরি হয়। কিন্তু সিনেমার ১২০ বা ১৫০ মিনিটে কি আর বইয়ের সবকিছু তুলে ধরা যায়? বিস্তারিত জানতে মূল বইটি পড়ে ফেলুন।

নোবেল পুরস্কার বিজয়ী কোনো লেখকের বই
নিজ সমাজ সাহিত্যের বই পড়ার পাশাপাশি অন্য দুনিয়াতে কী ঘটছে, তা-ও খেয়াল রাখতে পারেন। নোবেল পুরস্কার বিজয়ী কোনো লেখকের অপরিচিত কোনো বই হুট করেই হয়তো জীবনের অন্য কোনো মানে খুঁজে পেতে পারেন।

আপনি ঘুরতে যেতে চান এমন জায়গা নিয়ে কোনো বই
স্বপ্ন-সাধ-সাধ্যের অমিলের কারণে অনেক জায়গায় আমরা ঘুরতে যেতে পারি না। বইয়ের পাতা কিন্তু আপনাকে সেখানে নিয়ে যেতে পারে।