আপনি জানেন কি, দিনে কয়টা ডিম খাওয়া ভালো?



ডিম হলো ‘পাওয়ার হাউজ অব নিউট্রিশন’ অর্থ পুষ্টির আধার। আবার এ তথ্য বেশির ভাগেরই জানা যে প্রাণিজ প্রোটিনের মধ্যে ডিম অন্যতম। মোটকথা ডিম হচ্ছে আদর্শ প্রোটিন ফ্যাক্টরি। শুধু তাই নয় ডিমে রয়েছে ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড, যা হূদরোগসহ অনেক রোগের বিরুদ্ধে বেশ কার্যকরী। এত গুণ যার মধ্যে, তাহলে তো প্রতিবেলা একটি ডিম খাওয়াই ভালো। কিন্তু পুষ্টিগুণে ভরা হলেও প্রতিবেলা একটি ডিম খেলে হিতে বিপরীত ঘটার আশঙ্কাও থাকে।


তাই দিনে দুটির বেশি ডিম খাওয়া কখনই ভালো নয় বলছেন বিশেষজ্ঞরা। সকালে ঘুম ভাঙতে দেরি, তাই সহজ নাশতা হিসেবে ডিম, আর পাউরুটি টোস্টের কথাই মাথায় আসে। অন্যদিকে সপ্তাহর বাজার সারা হয়নি বলে রাতের খাবারের তালিকায়ও স্থান পাচ্ছে ডিম। কিংবা টেবিলভরা এতসব তরকারির কোনোটাই মুখরোচক না, তো কি আর করা, একটা ডিম ভেজে খেয়ে ফেলা ছাড়া। সহজলভ্য আর তৈরি করতেও সুবিধা হওয়ায় সকাল-সন্ধ্যা ডিম ভালো সমাধানই দেয়।

একদিকে যেমন পুষ্টির বিষয়টি ঠিকঠাক থাকছে, অন্যদিকে ঝটপট খাবার তৈরি করাও সম্ভব হচ্ছে। তাই বলে প্রয়োজনের বেশি ডিম খাচ্ছেন না তো! কিন্তু প্রতিদিনের খাবারের তালিকায় ঠিক কয়টি ডিম থাকা স্বাস্থ্যের জন্য ভালো, এটা জেনে রাখা আপনার জন্যই ভালো হবে। এক সপ্তাহে এক ডজন ডিম একজন ব্যক্তির জন্য যথাযথ। সেই হিসাব অনুযায়ী প্রতিদিন দুটি ডিম খেলে আপনাকে পড়তে হবে না স্বাস্থ্যঝুঁকিতে।


এমনটাই বলেছেন পুষ্টিবিদ কেরি গানস। তার ‘দ্য স্মল চেঞ্জ ডায়েট’ নামের বইটিতে এ তথ্য উঠে এসেছে। ডিম খেতে ভালোবাসেন যারা, তাদের জন্য এটা নিতান্তই সুখবর। কেননা দিনে দুটো ডিম খাওয়া যাবে কোনো ঝামেলা ছাড়াই, মন্দ কি! তবে এখানেও একটা বিবাদ আছে বলে উল্লেখ করেছেন কেরি।

তিনি বলেছেন, দিনে দুটি ডিম খাওয়া যেতে পারে, তবে খেয়াল রাখতে হবে তার খাদ্যতালিকার দিকেও। কেননা এমন যদি হয় যে সে আগেই পর্যাপ্ত চর্বি গ্রহণ করেছে, তাহলে তার জন্য দিনে দুটি ডিম খাওয়া ঠিক হবে না। যদি একই সঙ্গে দুটো ডিমও খাবার তালিকায় থাকে আবার পর্যাপ্ত পনিরও জায়গা করে নেয় একই দিনের ডায়েট চার্টে, তাহলে ক্যালরি গ্রহণ করা পরিমাণের তুলনায় বেশিই হবে।

যদি একটু অলিভ অয়েলে, লবণ, গোলমরিচ দিয়ে ডিম ভেজে খাওয়া হয়, সেক্ষেত্রে দিনে দুটি ডিম খাওয়া যেতেই পারে। কিংবা সঙ্গে যদি থাকে পর্যাপ্ত সবজি। কিন্তু যদি এমন হয় যে, ডিম, পনির, মাংস একই দিনে থাকে, তাহলে কিন্তু দুটি ডিম একদিনে খাওয়া মোটেও ভালো হবে না। সব মিলে বলা চলে, দিনে কয়টা ডিম খাওয়া যাবে, সেটা সম্পূর্ণই নির্ভর করে সারা দিন গ্রহণ করা আপনার অন্যান্য খাবারের ওপর। একটা মোটামুটি আকারের ডিমে রয়েছে ৮০ ভাগ ক্যালরি, ৫ গ্রাম ফ্যাট এবং ৬ গ্রাম প্রোটিন। তাই যদি এমনটা হয় যে, সারা দিন অন্যান্য খাবার থেকে পর্যাপ্ত প্রোটিন এবং ফ্যাট সংগ্রহ করা হয়ে থাকে, তাহলে দুটি ডিম খাওয়া আপনার জন্য ভালো কিছু নয়।
Previous
Next Post »